Home / আন্তর্জাতিক / কয়েকটি জিনিষ যা বিদেশে নিষিদ্ধ কিন্তু বিক্রি হচ্ছে, ৬ নাম্বারটি খেলে আপনার মৃত্যু হতে পারে…

কয়েকটি জিনিষ যা বিদেশে নিষিদ্ধ কিন্তু বিক্রি হচ্ছে, ৬ নাম্বারটি খেলে আপনার মৃত্যু হতে পারে…

ভারতে এমন অনেক জিনিস আছে যেগুলো বাইরের দেশ থেকে আমদানি করে বিক্রি করা হয়। সেটা সাবান হোক বা ঔষধই হোক না কেন। ভারতে যে কোন জিনিষ খুব সহজে বিক্রি করা যায়।‌ অন্য দেশে যে সমস্ত জিনিস নিষিদ্ধ, সেইগুলো এখানে খুব সহযেই বিক্রি হয় আর সাধারন মানুষ সেটা জানতেও পারে না। দেখি কোন জিনিস গুলো অন্য দেশে নিষিদ্ধ কিন্তু এখানে বিক্রি হয়।

লাইফবয় সাবান

আপনি ঐ বিজ্ঞাপনটা নিশ্চয়ই দেখেছেন যেখানে বলে ‘বান্টি তোর সাবান স্লো নাকি?’ তাহলে আপনাদের বান্টির সাবান স্লো নয় বরং সেটা  আমেরিকাতে নিষিদ্ধ। এই সাবান ব্যবহার করে মানুষের ত্বক খারাপ হয়ে যায় তাই সেটা আমেরিকাতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আমাদের দেশে সেটি বেশ ভালোই বিক্রি হচ্ছে।

কিন্ডার জয়

বাচ্চাদের চকলেট আগাগোরা পছন্দের জিনিস। আর এখন তো কিন্ডার জয় এসে বাচ্চাদের চকলেটের প্রতি আকর্ষণ আরও বেড়ে গেছে। তারপর এর থেকে ছোট ছোট খেলনা পাওয়া যায়। সেগুলো বাচ্চারা খেলতে খুব ভালোবাসে। আর কোম্পানির মালিক এই জিনিসেরই ফায়দা উঠিয়েছে। এই কিন্ডার জয় বাচ্চাদের খাওয়ার পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক। তাই আমেরিকা সরকার কিন্ডার জয় খাওয়া এবং তার খেলনা নিয়ে খেলাকে নিষিদ্ধ লাগিয়ে দিয়েছেন।

সিঙ্গারা

এই চটপটা খাবারটি আমাদের দেশের নয়, আমাদের দেশ শুধু এই খাবারটিকে নিজেদের ভঙ্গিতে বানিয়েছে। সিঙ্গারার উপর সোমালিয়ায় প্রতিবন্ধকতা লাগানো আছে। যার শ্রেয় জিহাদী সংগঠন আল-শাবাবের উপর বর্তায়। আল-শাবাবরা নিজেদের এলাকাতেও সিঙ্গারার উপর প্রতিবন্ধকতা লাগানোর কারণ তারা মনে করেন যে এটি খ্রিস্ট ধর্মের সাথে যুক্ত।

রেডবুল

এটি এক রকমের পানীয় যেটা আজকালের যুবকেরা খুব খায়। কিন্তু এই পানীয় আপনার হার্টকে খারাপ করতে পারে এবং হার্ট এ্যাটাক, ডিপ্রেশন, হাইপার টেনশনের মত রোগও হয়ে যেতে পারে। এই পানিয়টি ফ্রান্স এবং ডেনমার্কে নিষিদ্ধ এবং ১৪ বছরের নিচে কেউ এটি পান করতে পারেন না।

ডিসপ্রিন

এই ওষুধটি আমেরিকাতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে কারণ এই ওষুধটি শরীরের রক্তকে পাতলা করে দেয় এবং রক্ত থেকে প্লেটলেটস কম করে দেয়। দিল্লি সরকারও এখন এই ওষুধটিকে নিষিদ্ধ করে দিয়েছে। কিন্তু এখনো ভারতের অনেক জায়গায় এটি বেশ রমরমিয়ে বিক্রি হচ্ছে ।

ডি কোল্ড টোটাল

যদি ভারতে কারুর সর্দি কাশি হয় তাহলে সে সবার প্রথমেই ডি-কোল্ড ব্যবহার করেন। এই ওষুধটি ভারতে খুবই জনপ্রিয়। এমনকি ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই কিছু কিছু মানুষকে এই ওষুধ সেবন করে থাকেন। কিন্তু এই ওষুধটি যে কত ক্ষতিকারক সেটা কেউ জানেনা। আসলে এই ওষুধটি সেবন করলে কিডনি খারাপ হতে পারে। তাই এই ওষুধটি অন্যান্য সব দেশেই নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

নিমুলিড

যদি ভারতে কারুর পেট ব্যাথা হয় তাহলে সবার এই মানসিকতা যে পেনকিলার খেলে পেট ব্যাথা ঠিক হয়ে যাবে। নিমোলিড ভারতে একটি খুবই জনপ্রিয় ওষুধ। তাই পেট ব্যাথা হলেই সাধারণ মানুষ এটি ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু এই ওষুধটি লিভারের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। এতে লিভার খারাপ হতে পারে। এজন্যে এটি আমেরিকা ব্রিটেন, কানাডা, অস্ট্রেলিয়ার মতো বহু দেশেই নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

পেস্টিসাইড

পেস্টিসাইড ক্ষেতে ব্যবহার করা হয়। এটি আনাচ যাতে ভাল থাকে সেইজন্যই এই ওষুধটির ব্যবহার করা হয়। বিদেশে ৬৪ পেস্টিসাইড প্রতিবন্ধকতা আছে। কিন্তু ভারতে এখনো এই সমস্ত পেস্টিসাইডের ব্যবহার চলছে।

টাটা নেনো

প্রথমে যখন ভারতের টাটা কোম্পানির এই গাড়িটি আসে তখন বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল কারণ এটি কম দামে বিক্রি হয় আর আজও যাদের বাজেট কম তারা এই বাড়িটি কিনতে পছন্দ করে। গাড়িতে চোট লাগার অনেক সম্ভাবনা বেশি। এই গাড়িটি গ্লোবাল এনসিএপি এর কেস টেস্টে ফেল হয়েগিয়েছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও আমাদের দেশে এই গাড়িটি  বিক্রি হয়। কিন্তু এই গাড়িটি অন্যান্য সমস্ত দেশে নিষিদ্ধ।

মারুতি সুজুকি অল্টো ৮০০

দিন কে দিন ভারতে দুর্ঘটনার সংখ্যা বেড়েই চলেছে। কিন্তু আজও মানুষ এই গাড়িটি কিনে চলেছে। এই গাড়িটি সমস্ত রকম স্পিড টেস্টে ফেল হয়েছে।‌ এই গাড়িটি আপনাকে আরাম দেবে কিন্তু সুরক্ষা দেবে না।‌ কিন্তু আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয় এই গাড়িটি।‌ এই কারণেই অন্যান্য সমস্ত দেশে এই গাড়িটি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু প্রতিবছরই এই গাড়িটি কেনার সংখ্যা আমাদের দেশে বেড়ে চলেছে।

Check Also

জিপি সিম দিয়ে facebook ফ্রি চালান ছবিসহ সব ব্রাউজার দিয়ে চলবে

আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভালো আছি। এখন কাজের কথায় আসি। বর্তমানে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *