তাহলে মিথ্যাটা কে বলছেন, শাকিব না অপু? বিস্তারিত…

বিয়ের ঘটনা ফাঁস হওয়ার পরপরই ঢালিউডের আলোচিত জুটির শাকিব খান-অপুর বিশ্বাসের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। এক পর্যায়ে তারা মুখ দেখাদেখিও বন্ধ করে দেন।

নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করেন তৃতীয় ব্যক্তির মাধ্যমে। ফোনে কিংবা অন্য কোনোভাবেও তাদের যোগাযোগ নেই। গণমাধ্যমকে ঢাল করেই তারা পরস্পরের বক্তব্য তুলে ধরছেন। কোনো ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছেনও গণমাধ্যমে।

অর্থ্যাৎ তাদের ব্যক্তিগত জীবনটা আর ব্যক্তিপর্যায়ে নেই। কোনো বিষয়েই তারা একমত নন। তাদের তীব্র মতপার্থক্য সম্প্রতি চরমে পৌঁছেছে তাদের একমাত্র সন্তান জয়কে নিয়ে। কিন্তু এটিই প্রথম নয়। এর আগে তারা যেসব বিষয়ে একমত হতে পারেননি:

বিয়ের তারিখ
শাকিব-অপুর বিয়ের তারিখ নিয়েও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয় শাকিবকে ভালোবেসে ধর্মান্তরিত হয়ে ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ের করেন অপু। কিন্তু তাকে পাঠানো তালাকনামায় বিয়ের তারিখ হিসেবে শাকিব লিখেছেন ১৬ মার্চ।

দেনমোহর বিতর্ক
শাকিব বলেছেন, অপুর সঙ্গে তার বিয়ের দেনমোহর ৭ লাখ ১ টাকা। অপু বলেছেন, দেনমোহরের পরিমাণ ছিলো ১ কোটি ৭ লাখ টাকা! তবে কেউ এখনো কোন প্রমাণ দেখাতে পারেননি।

বিয়ের কাজী নিয়ে বিতর্ক
অপু জানান, তাদের বিয়ের কাজী শাকিবের পরিচিত। শাকিবের গ্রামের বাড়ি থেকে ওই কাজীকে আনা হয়। কিন্তু শাকিব বলেছেন, বিয়ের কাজী অপুর পরিচিত।

অপু বিশ্বাসের বয়ফ্রেন্ড বিতর্ক
গণমাধ্যমে শাকিব দাবি করেছেন, অপু বয়ফ্রেন্ড নিয়ে কলকাতায় ঘুরতে গেছেন। কিন্তু অপু বিশ্বাস বলেছেন, যারা বয়ফ্রেন্ডের খবর প্রকাশ করেছে তারা মানসিকভাবে অসুস্থ।

তালা বিতর্ক
অপুর সঙ্গে তিক্ততা শুরু হলেও সন্তান জয়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখেছেন শাকিব। তবে এ নিয়েও শুরু হয় বিতর্ক। গত নভেম্বরে শাকিব দাবি করেন, জয়ের সঙ্গে তিনি দেখা করতে গিয়ে দেখেন অপুর বাসায় তালা। অপু গৃহকর্মীর কাছে সন্তান রেখে বিদেশ চলে গেছেন।

এ নিয়ে পাল্টা হিসেবে অপু বলেছেন, ‘তালা দেয়া ছিল না। ভেতর থেকে দরজা বন্ধ ছিল।’ ঘরে গৃহকর্মীর কাছে নয়, নিজের বোনের কাছে সন্তানকে রেখে গেছেন। তার কাছে তালার চাবিও ছিল!

সন্তান জয়কে নিয়ে বিতর্ক
এটাই শাকিব-অপু দম্পতিকে নিয়ে সর্বশেষ বিতর্ক। গত রবিবার রাতে দেশে ফিরে সোমবার রাতেই শাকিব উড়াল দেন অস্ট্রেলিয়ায়। যাওয়ার আগে গণমাধ্যমকে বলেন, কয়েক দিন ধরে বাচ্চাটার জন্য মনটা খুব কাঁদছিল। তাই তাড়াহুড়ো করে অল্প সময় নিয়ে জয়কে দেখতে এসেছি। কিন্তু মনে বড় কষ্ট নিয়ে ফিরে যাচ্ছি। অপু বাচ্চাটাকে দেখতে দিল না আমাকে।

এর জবাবে অপু বলেছেন, ছেলেকে দেখতে চেয়ে শাকিব কোনো যোগাযোগই করেননি। শাকিবের কোনো কল আসেনি। তার কোনো লোকও আমাকে কল দেয়নি।

আমাকে এসএমএসও করেনি। আদৌ শাকিব বাচ্চাকে দেখতে চেয়েছে কী না তাও জানি না। অপু আরও জানান, তালাকনামা পাঠানোর পর আর জয়ের সঙ্গে দেখা করেননি শাকিব। তাহলে মিথ্যাটা কে বলছেন, শাকিব না অপু? –বিডি প্রতিদিন

Add Comment

Required fields are marked *. Your email address will not be published.